মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২ | ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

শান্তিগঞ্জ খাস জায়গা বন্দোবস্ত নিয়ে দীর্ঘদিনের চলাচলের রাস্তা বন্ধ : ইউএনও বরাবরে অভিযোগ দায়ের



সুনামগঞ্জ জেলার শান্তিগঞ্জ উপজেলার জয়কলস গ্রামে আটটি পরিবারের দীর্ঘদিনের চলাচলের রাস্তা স্থায়ী ভাবে দখল করে পাকা দালান ঘর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে খাস জায়গা বন্দোবস্ত পাওয়া রইছ উদ্দিন ও তার স্ত্রী পিয়ারা বেগমের বিরুদ্ধে। রাস্তায় চলাচলকারী মহসিন উদ্দিন ও তার পরিবারের লোকজন বাধা দেওয়ায় তাহাকেও হুমকি ধামকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ ভূক্তভোগীর। রাস্তা দখল মুক্ত করতে শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আনোয়ার উজ জামানের কাছে লিখিত অভিযোগটি দায়ের করেছেন, উপজেলা জয়কলস ইউনিয়ন জয়কলস গ্রামের মৃত ওয়াছির আলীর ছেলে মহসিন উদ্দিন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জয়কলস গ্রামের মৃত ওয়ারিছ আলীর বড় ছেলে রইছ উদ্দিন ও তার স্ত্রী পিয়ারা বেগম ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরে আপন ছোট ভাই মহসিন উদ্দিন চাকুরীর সুবাদে ২০০৪ সাল হইতে স্বপরিবারে অন্যত্র অবস্থায় করায় তাহাদের অগোচরে রেকর্ডিয় বসত বাড়ীর সামনের ডোবা ও দীর্ঘদিনের চলাচলের রাস্তা সহ সামনের খাস জমি বন্দোবস্ত মোকদ্দমা নং-২০/২০১৫-১৬ ইং মূলে ৪৫১/২ দাগের ২৬ শতাংশ ভূমি বন্দোবস্ত নিয়া যায়। অভিযুক্ত রইছ উদ্দিন ও তার স্ত্রী পিয়ারা বেগম বন্দোবস্ত পাওয়ার পর থেকে সেখানে বসত ঘর নির্মাণ করে বসবাস শুরু করেন। উল্লেখিত বন্দোবস্ত পাওয়া ভূমির উত্তর, পশ্চিম ও দক্ষিণ সীমানায় অভিযোগকারী মুহসিন উদ্দিনের রেকর্ডিয় ভূমি রহিয়াছে। তিনি মালিক হিসাবে জয়কলস মৌজার বন্দোবস্ত পাওয়া ভূমির উত্তর সীমানায় জেএল নং-২০৩, খতিয়ান নং-৭৮৮, দাগ নং-৪৩৭, পরিমান-১৫ শতাংশ, দক্ষিণ ও পশ্চিম সীমানায় দাগ নং-৪৩৬, ৪৩৭, পরিমান-০.২৪৭৫ শতাংশ ভূমি ভোগ দখলেও আছেন। অভিযুক্ত রইছ উদ্দিন ও পিয়ারা বেগম গত একবছর আগে অভিযোগকারী মহসিন উদ্দিন সহ প্রতিবেশী আটটি পরিবারের দীর্ঘদিনের চলাচলের রাস্তা স্থায়ী ভাবে দখল করে পাকা দালান ঘর নির্মাণ কাজ শুরু করে। রাস্তা দখল করে পাকা দালান ঘর নির্মাণ কাজে বাঁধা ও চলাচলের রাস্তা বন্ধের বিষয়টি স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের অবহিত করিলে কিছুদিন কাজ বন্ধ রাখলেও পুনরায় রাস্তার অর্ধেক অংশ দখল করে টিনসেড ঘর নিমার্ণ করে অভিযুক্ত রইছ উদ্দিন। বর্তমানে অভিযোগকারী মহসিন উদ্দিন ও তাহার প্রতিবেশী আটটি পরিবারের উত্তর ও দক্ষিণ সীমানার দুইটি রাস্তাই অভিযুক্ত রইছ উদ্দিন ও তাহার স্ত্রী পিয়ারা বেগম বন্দোবস্ত নিয়ে ভোগ দখল করায় অভিযোগকারী মহসিন উদ্দিন সহ উল্লেখিত পরিবারের লোকজনদের চলাচল করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। এ নিয়ে কয়েক দফা সমাধানের চেষ্টা করেও এই সমস্যার মেলেনি কোন সমাধান।
অভিযুক্ত রইছ উদ্দিন অভিযোগের বিষয়ে বলেন, আমি কোন রাস্তা বন্ধ করি নাই। চলাচলের রাস্তাটি উন্মুক্ত আছে। তবে রাস্তা বন্ধ না করে আমি দালান ঘর নির্মাণ করেছি।
শান্তিগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা(ইউএনও) মো. আনোয়ার উজ জামান অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বন্দোবস্তকৃত ভূমিতে আমার জানামতে পাকা দালান ঘর নির্মাণ করার কোন অনুমতি নেই। তবে যদি কেউ রাস্তা বন্ধ করে পাকা দালান ঘর নির্মাণ করে। তদন্তে প্রমাণিত হলে তার বন্দোবস্ত বাতিল করা হবে। ইতিমধ্যে সহকারি কমিশনার(ভূমি)কে নির্দেশনা দিয়েছি।
সংবাদটি শেয়ার করুন