বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২ | ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

শান্তিগঞ্জ কার্প হ্যাচারী পরিদর্শনে :মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী।



শান্তিগঞ্জ কার্প হ্যাচারী কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেছেন মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী । রোববার সকাল ১১টায় শান্তিগঞ্জ কার্প হ্যাচারী কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেন। পরে তিনি বিকালে  জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এক সভায় যোগদান করেন। এসময় মৎস্যজীবীসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী।

এ সময় সচিব বলেন, ‘বর্তমানে হাওরে মিঠাপানির মাছের অভাব। মিঠাপানির মাছ বাড়াতে সরকারের নানা পরিকল্পনা রয়েছে। আমরা চাই মাছ উৎপাদনের উৎস খুঁজে বের করতে।’

সচিব আরও বলেন, ‘নীতিমালা অনুযায়ী জলমহাল ইজারা দেওয়ার তিন বছর পরপর সেচ করে মাছ আহরণ করতে হবে। যারা প্রতি বছরই বিল সেচ করে তাঁদের ইজারা বাতিল করা হবে।’ বিল খননে কোনো অনিয়ম মেনে নেওয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশন চেয়ারম্যান মো. হেমায়েৎ হুসেন, ক্রয় বিপণনের পরিচালক মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. মনজুর মোহাম্মদ শাহজাদা, মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মাহবুবুল হক।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন উপকারভোগীরা ও জেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •