বুধবার, ২৯ জুন ২০২২ | ১৫ আষাঢ় ১৪২৯

শিমুলবাকে ৩টি ভোট কেন্দ্রে স্পেশ্যাল ফোর্স মোতায়েনের দাবী জানালেন নৌকার প্রার্থী



সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার শিমুলবাক ইউনিয়নের ৩টি ভোটকেন্দ্রকে ঝুকিপূর্ণ কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত করে এসব কেন্দ্রে ভোটারদের ভোটাধিকার প্রয়োগ নিশ্চিত করার দাবী জানিয়েছেন নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগ মনোনিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মিজানুর রহমান জিতু।

জেলা নির্বাচন অফিসার বরাবরে এ ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। একই বিষয়ে তিনি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের কাছেও আবেদন জানিয়েছেন লিখিতভাবে। শিমুলবাক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র,রামেশ্বরপুর গ্রামস্থিত ডিকেসিআর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ধনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এ ৩টি কেন্দ্রকে অত্যন্ত ঝুকিপূর্ণ কেন্দ্র বলে উল্লেখ করেছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জিতু। ঝুকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলিতে সুশৃঙ্খলভাবে ভোটাররা যাতে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে তা নিশ্চিত করার জন্য জেলা নির্বাচন কমিশনের কাছে স্পেশ্যাল ফোর্স মোতায়েনের দাবী জানান তিনি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শান্তিগঞ্জ থানার ওসি কাজী মুক্তাদীর আহমদ বলেন,আমরা শান্তিগঞ্জ থানার সবকটি কেন্দ্রকেই ঝুকিপূর্ণ মনে করছি। এজন্য আগাম ও সর্বোচ্চ সতর্কতা ও নজরদারী থাকবে আমাদের। তিনি বলেন,স্মরণকালের নজিরবিহীন অবাধ ও নিরপেক্ষ একটি সুন্দর নির্বাচন আমরা সুসম্পন্ন করবো শান্তিগঞ্জ উপজেলায়। এ ব্যাপারে সরকারী দলের কেন বিরোধীদলের প্রার্থীদেরও হতাশ হওয়ার কিছু নেই। তিনি সম্ভাব্য যেকোন নাশকতা বা উস্কানীমূলক কর্মকান্ড প্রতিহত করার জন্য তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশ প্রশাসনকে অবগত করার জন্য সকল চেয়ারম্যান,মেম্বার ও নারী প্রার্থী ছাড়াও ভোটারদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চেয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আনোয়ারুজ জামান এর মুঠোফোনে কল করলে ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী মিজানুর রহমান জিতু বলেন,আমার আবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা নির্বাচন কমিশন কোন পদক্ষেপ আদৌ গ্রহন করেছে কিনা ? তা আমি এখনও জানতে পারিনি বা কেউ এখন পর্যন্ত আমাকে জানায়নি।

ভোটাররা বলেন,নৌকার প্রার্থীকে পরাজিত করানোর জন্য একজন গডফাদারের ছত্রছায়ায় একটি চিহ্নিত প্রভাবশালী  মহল ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। শেষ পর্যন্ত এর পরিণতি গিয়ে কোথায় দাড়ায় সেদিকে দৃষ্টি এখন ভোটারদের।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •