শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

কিশোর-কিশোরী সম্মেলনে সুনামগঞ্জের ১০ মেধাবীর অংশগ্রহণ



বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ কিশোর-কিশোরী সম্মেলন ২০১৮ সম্পন্ন হয়েছে। এ সম্মেলনে সুনামগঞ্জ জেলা থেকে নির্বাচিত ১০ জন মেধাবী কিশোর-কিশোরী অংশগ্রহণ করেন।

রোববার (২১ অক্টোবর) ‘মেধা ও মননে সুন্দর আগামী’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে পল্লীকর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন পিকেএসএফ এর উদ্যোগে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

পদক্ষেপ মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্রের ব্যবস্থাপনায় সুনামগঞ্জ জেলার ৪শত প্রতিযোগীর মধ্যে সৃজনশীল ও বিষয়ভিত্তিক জ্ঞানের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় নিজের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ দিয়ে ঢাকায় আয়োজিত কিশোর-কিশোরী সম্মেলন ২০১৮ তে যোগ দেওয়ার সুযোগ পেয়েছে জেলার ১০ জন যোগ্য ও মেধাবী শিক্ষার্থী। তাদের মতো ১০ হাজারের অধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে ১ লাখ ছাত্রছাত্রীর মধ্যে থেকে নির্বাচিত ৭১০ জন যোগ্য ও মেধাবী কিশোর-কিশোরী এতে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পেয়েছে।

অনুষ্ঠানে কিশোর-কিশোরীর অভিভাবকরাও উপস্থিত ছিলেন। নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে।

শিক্ষার্থীরা জানায়, এ ধরনের আয়োজনে মেধা ও মননে সুপ্ত প্রতিভা বিকাশের সুযোগ সৃষ্টি করেছে। বিভিন্ন সৃজনশীল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের সুযোগ পেয়েছে তারা। বড় হয়ে একজন আলোকিত মানুষ হওয়ার স্বপ্ন তাদের।

উপজেলা থেকে জেলা পর্যায় রচনা প্রতিযোগিতা, সাধারণ জ্ঞান, গণিত, বিজ্ঞান, উপস্থিত বক্তৃতা, সৃজনশীল বিষয় ও জ্ঞানভিত্তিক কুইজ লড়াই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে চারটি ধাপে সেরাদের বাছাই করা হয়েছে। ২১ অক্টোবর রোববার সকাল ৯টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সেরা প্রতিযোগীরা সম্মেলনে যোগদান করে।

‘জাগিয়া উঠিল প্রাণ’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে আয়োজিত সম্মেলন উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

পিকেএসএফ-এর চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন পিকেএসএফ এর পরিচালনা পর্ষদের সদস্য নাজনীন সুলতানা এবং সমাপনী বক্তব্য প্রদান করেন পিকেএসএফ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল করিম।

সম্মেলনে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন।

সম্মেলনে শেষাংশে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা কিশোর-কিশোরীদের অংশগ্রহণে পরিবেশিত হয় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। যেখানে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর উপস্থিত থেকে কিশোর-কিশোরীদের অনুপ্রাণিত করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন