শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

অভিনয়ে ফিরলেন মুক্তি



অভিনয়ে মনোযোগ বসাতে না পারায় বেশ লম্বা একটা সময় ঢাকার বাইরে নিজ জেলা দৌলতপুরে ছিলেন টিভি অভিনেত্রী মুক্তি। যে কারণে দীর্ঘ একটা সময় মিডিয়া জগত থেকে পুরোপুরি বাইরে ছিলেন তিনি। মন থেকে আগ্রহ জন্মাচ্ছিল না বলেই মাঝে কিছুদিন অভিনয়ে বিরতি নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এখন আবার অভিনয়ে একটু একটু করে ব্যস্ত হয়ে উঠতে চাইছেন তিনি।

বৈশাখী টিভিতে প্রচার চলতি সাজ্জাদ হোসেন দোদুল পরিচালিত ‘ছায়াবিবি’ ধারাবাহিকে অভিনয়ে যুক্ত হয়েছেন মুক্তি। যে কারণে শুটিংয়ের সিডিউল দেয়া হলে চলে আসেন রাজধানীর উত্তরায়। সেখান থেকেই লোকেশনে গিয়ে শুটিং করেন তিনি।

তারপর কাজ না থাকলে ফিরে যান খুলনার দৌলতপুরে। সেখানে বাবা মুক্তিযোদ্ধা শেখ আবদার রহমান ও ভাই ববি’র কবরস্থান আছে। মা-ই এখন মুক্তির পুরো পৃথিবী। মায়ের সঙ্গেই সময় কাটাতে সবচেয়ে বেশি ভালো লাগে তার।

এই মুক্তির অভিনয়ে যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৯৯ সালে তৌকীর আহমেদের বিপরীতে মিনহাজুর রহমানের নিদের্শনায় ‘অগ্নিগিরি’ নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে।

এরপর এক নাটকের জনপ্রিয়তাই তাকে আগামীর পথে এগিয়ে যেতে দারুণ উৎসাহ দেয়। অনেকটা সময় পেরিয়ে যাওয়ার পর হাছিবুল ইসলাম মিজানের নিদের্শনায় ‘তুমি আছো হৃদয়ে’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন ২০০৭ সালে। এতে তার বিপরীতে ছিলেন কায়েস আরজু। প্রথম চলচ্চিত্রে মুক্তির অভিনয়ে মুগ্ধ হন দশর্ক। কিন্তু তারপরও বিরতি টানতে হয় তাকে।

সবের্শষ তিনি দ্বিতীয় চলচ্চিত্র শাহাদাৎ হোসেন লিটনের ‘জোর করে ভালোবাসা হয় না’ অভিনয় করেন শাকিব খানের বিপরীতে। অনেক দিন নতুন চলচ্চিত্রে দেখা যাচ্ছে না আপনাকে, কেন? জবাবে মুক্তি বলেন, ‘প্রথম আমার কাছে মনে হয় গল্পে খুব বেশি ভিন্নতা নেই। তা ছাড়া আমার কাছে এটাও মনে হয় যে একটি পরিপূর্ণ গল্প নিমাের্ণর ক্ষেত্রে যথাযথ বাজেটও পাওয়া যায় না। সব মিলিয়েই আমার নতুন কোনো চলচ্চিত্রে অভিনয় করা হচ্ছে না। তবে অবশ্যই গল্প এবং চরিত্র আমার মনের মতো পেলে কাজ করব।’ নতুন ধারাবাহিক ‘ছায়াবিবি’র পাশাপাশি মুক্তি এরই মধ্যে শেষ করেছেন বিটিভির বিশ্বনাটক ‘দ্য ম্যারিজ’ নাটকের কাজ। এ ছাড়াও তিনি শামীম জামানের নিদের্শনায় সিক্যুয়াল নাটক ‘নূরা পাগলা টু’ এবং রাকেশ বসুর নিদের্শনায় ধারাবাহিক নাটক ‘শেষ ভালো যার’ কাজ করছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন