শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

ছাতকে সনদ জালিয়াতি করে শিক্ষক পদে চাকরি



সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার স্থায়ী বাসিন্দা না হয়েও ভুল তথ্য দিয়ে ভুয়া নাগরিকত্ব সনদ নিয়ে স্থানীয় সেজে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক পদে একজন নিয়োগপ্রাপ্ত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নীতিমালা অনুযায়ী প্রার্থীকে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট উপজেলার স্থায়ী বাসিন্দা হওয়ার নিয়ম থাকলেও ছাতক উপজেলার চেলারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদে হুমায়ুন কবির নামে জামালগঞ্জ উপজেলার একজনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।
জানা যায়, হুমায়ুন কবির ছাতকের জাউয়া বাজার ইউনিয়নের খিদ্রাকাপন গ্রামের রুহুল আমিনের ছেলে উল্লেখ করে নাগরিক সনদপত্র জমা দেয়। কিন্তু খিদ্রাকাপন গ্রামে এ নামের কোনো স্থায়ী বাসিন্দা নেই।
এব্যাপারে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের বরাবরে সালাহ উদ্দিন নামের ঐ নিয়োগ পরীক্ষার একজন প্রার্থী লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
এদিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরিক্ষা ২০১৪ -২০১৮ তে নিয়োগপ্রাপ্ত ছাতক উপজেলায় ৩৮জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পেয়েছেন। এদের মধ্যে অন্তত ৫জন একইভাবে নাগরিকত্ব সনদ জাল করে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। জাউয়া বাজার ইউপি চেয়ারম্যান মুরাদ হোসেন জানান, হুমায়ুন কবির বেশ কয়েক বছর ধরে এখানে বসবাস করে আসছে এবং একটি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকরি করছে। এছাড়া স্থানীয় ইউপি সদস্যের প্রত্যায়নপত্র নিয়ে নাগরিক সনদের জন্য আবেদন করেছিলো। পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে আলোচনা করে তাকে নাগরিক সনদ দেওয়া হয়েছে।
ছাতক উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মানিক চন্দ্র দাশ জানান, এ বিষয়ে এখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া হয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া

Chat conversation end

সংবাদটি শেয়ার করুন