সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

মোহনপুর-কলখ্তার মধ্যকার কুস্তিখেলায় জয়ী মোহনপুর



সদর উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের মোহনপুর গ্রামে হাজারো দর্শকের উপস্থিতি দাওয়াতি কুস্তিখেরা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার মোহনপুর গ্রামের মাঠে অনুষ্ঠিত কুস্তিখেলায় জামালগঞ্জের কলখতাকে হারিয়ে বিজয়ী হয়েছে মোহনপুরের কুস্তিগীররা। ভাটি বাংলার ঐতিহ্যবাহী এই কুস্তিখেইড়ে কয়েক হাজার দর্শক অংশ নেন।
বুধবার দিনব্যাপী মোহনপুর পশ্চিম মাঠে দুই গ্রামের কুস্তিগীরদের মধ্যে জমজমাট কুস্তিখেলা অনুষ্ঠিত হয়। দুই গ্রামের কুস্তিগীররা শক্তি ও কৌশল প্রদর্শন করে একে অন্যকে পরাস্থ করতে মুখিয়ে ছিলেন। চূড়ান্ত উত্তেজনার মধ্যে দাগার খেলায় মোহনপুর গ্রামের কুস্তিগীররা কলখতা গ্রামের কুস্তিগীরদের পরাজিত করে বিজয়ী হন।
দুই গ্রামের কয়েক হাজার দর্শক ও এলাকার বিশিষ্টজনদের উপস্থিতিতে সকাল ১১টা থেকে খেলা শুরু হ। চূড়ান্ত উত্তেজনার মধ্য দিয়ে বিকাল পাঁচটায় খেলা শেষ হয়। হাজার হাজার দর্শকের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত খেলার প্রাথমিক পর্যায়ে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলে। পাল্টাপাল্টি করে খেলতে থাকে দুই গ্রামের কুস্তিগীররা। মাঠে একে অন্যকে পরাস্থ করায় দুই শিবিরে চলছিল উত্তেজনা।
দুপুর আড়াইটায় দুই গ্রামের মান্যজন বিচারকের দায়িত্বরত আমিনদের সঙ্গে নিয়ে মূল পর্যায়ের খেলা দাগা শুরু করেন। কুস্তির সবচেয়ে আকর্ষণীয় পর্যায় দাগা বা মালের লড়াইয়ের জন্য ৪-৮ টা খেলা নির্ধারণ করা হয়। উভয় গ্রামের প্রথম তিনজন মালের (প্রধানতম কুস্তিগীর) খেলা সমান যাওয়ার পর ফলাফল প্রত্যাশী দর্শকদের মধ্যে প্রাণ ফিরে আসে। চতুর্থ খেলোয়াড় হিসেবে দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া শোয়েব আহমদ মাঠে নামলে মাঠজুড়ে ঈকার (তুমুল কোরাস ধ্বনী) ওঠে। করতালিতে মুখরিত হয়ে ওঠে মাঠ। কয়েক হাজার দর্শককেও নিরাশ করেননি নবীন কুস্তিগীর শোয়েব। চোখ ফেরাতে না ফেরাতেই আচমকা কলখতা গ্রামের প্রধান দুই দাগার খেলোয়াড়কে পরাজিত করে মাঠে উত্তেজনার জন্ম দেন। তার খেলায়ই চূড়ান্ত জয় নির্ধারণ হয়ে যায় মোহনপুর গ্রামের। শক্তি, কৌশলে কলখতা গ্রামের দুই কুস্তিগীরকে পরাজিক করে অভিনন্দনে ভাসতে থাকেন শোয়েব। তাকে নিয়ে জয়ধ্বনী শুরু করে গ্রামের সাধারণ মানুষ। দর্শকরাও অভিনন্দন জানাতে থাকেন। পরবর্তী দুটি খেলা সমান হওয়ায় ২-০ ব্যবধানে জয়ী হয় মোহনপুর।
হাজার হাজার দর্শকের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এ খেলার সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদের মোহনপুর গ্রামের নির্বাচিত ওয়ার্ড সদস্য ও মোহনপুর শালিস কমিটির সাধারণ সম্পাদক শামসুন্নুর, সাবেক ইউপি সদস্য আজিজুর রহমান, আব্দুর রহমান, লাল মিয়া, আব্দুল কাদির, জাহির আলি, জায়ফর আলি, আকিকুল ইসলাম, মুজিবুর রহমান, চানফর আলি ফকির, আলিমুদ্দিন, আব্দুল আওয়াল, জাহাঙ্গীর আলম, লুৎফুর রহমান প্রমুখ৷
খেলার সার্বিক শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য মোহনপুর যুব কল্যাণ পরিষদের পক্ষ থেক ২৫ সদস্যের আইডিকার্ডধারী স্বেচ্ছাসেবক টিম মাঠে সক্রিয় ছিলেন। এ মসময় মোহনপুর যুবকল্যাণ পরিষদের সভাপতি মোঃ রইসুজ্জামন, সাধারন সম্পাদক সেলিম, সহ-সভাপতি জনিক মিয়া, শামিম আহমদ সাপিজ, সাজু তালুকদার উপস্থিত থেকে সার্বিক নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য স্বেচ্ছাসেবক টিম পরিচালনা করেন।
বিজয়ী হওয়ার পরেও গ্রামে আমন্ত্রিত কলখতা গ্রামের কুস্তিগীর ও দর্শকদের আপ্যায়নের মাধ্যমে বিদায় দেন মোহনপুর গ্রামবাসী। দুই গ্রামের এই প্রীতি কুস্তিখেলা উপভোগ করে আনন্দ চিত্তে বাড়ি ফেরেন কয়েক হাজার দর্শক।

সংবাদটি শেয়ার করুন