সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

ছাতকে ১৫ হাজার শ্রমিকের মানবেতর জীবন



ছাতকে ছয় দিন ধরে নৌবন্দর এলাকায় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের কর্মবিরতি চলছে। ফলে সুরমা ও পিয়ান নদীতে শতাধিক বাল্ক্কহেড ও জাহাজে বালু-পাথর লোড-আনলোড বন্ধ রয়েছে। ছাতক নৌবন্দরে স্থায়ী ঘাট স্থাপন ও সব ধরনের বাল্ক্কহেড-কার্গোর নৌবন্দর সীমানা অতিক্রম না করার দাবিতে ইঞ্জিনচালিত নৌকার শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করছেন। ফলে পাঁচটি সংগঠনের আওতাধীন প্রায় ১৫ হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এরই মধ্যে এ অচলাবস্থা নিরসনে স্থানীয় প্রশাসনে লিখিত আবেদন করেও সুফল পাওয়া যাচ্ছে না।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কিছু অসাধু ব্যবসায়ী নদীবন্দর এলাকার বাইরে বালু-পাথর লোড-আনলোড করা এবং নৌবন্দর এলাকায় ঘাট স্থাপন না করেই বিআইডবিউটিএ কর্তৃক নিয়মবহির্ভূত চাঁদা আদায় করছে। এর প্রতিবাদে গত বৃহস্পতিবার থেকে কর্মবিরতি শুরু করেন দিনমজুর শ্রমিকরা। এ আন্দোলনে একাত্মতা ঘোষণা করেছে পাঁচটি সংগঠনের ব্যবসায়ী নেতারা।

এর পরও ব্যবসায়ী-শ্রমিকদের যৌক্তিক দাবির বিষয়ে সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষ আইনগত ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নেওয়ায় নৌপথে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

পাঁচ সমিতির ঐক্যজোটের সভাপতি মো. আবদুস সত্তার ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসান জুয়েল জানান, দ্রুত এ জটিলতার নিরসন না হলে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে দাবি আদায় করা হবে।

ইউএনও আবেদা আফসারী বলেন, যৌথ আলোচনার মাধ্যমে জটিলতা নিরসনের প্রক্রিয়া চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন