বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯

‘মিস্টার বিন’ এ ফেরা অনিশ্চিৎ রোয়ান অ্যাটকিনসন



জনপ্রিয় অভিনেতা রোয়ান অ্যাটকিনসন বলেছেন, তিনি তাঁর আইকনিক চরিত্রে আবার না-ও ফিরতে পারেন। দ্য গ্রাহাম নর্থটন শো-এ এসে তিনি বলেন, আমি আবার ফিরে আসব কি-না সন্দেহ। তবে এখনই কিছু নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না।

১৯৯০ সালে প্রথম শুরু হয় ‘মিস্টার বিন’ সিরিজ। টেলিকাস্টের সঙ্গে সঙ্গেই প্রচুর জনপ্রিয়তা অর্জন করে শুধু বাচ্চাদের মধ্যে নয়, বড়দের মধ্যেও। অ্যাটকিনসন অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে মাস্টার ডিগ্রিতে পড়াকালীন নিজেই ডেভলপ করেছিলেন চরিত্রটাকে।

অ্যাটকিনসন আইরিশ টিভির সঞ্চালক গ্রাহাম নর্থtনের বিবিসি শো-এ এ কথা বলেছেন। তিনি আরো বলেন, আপনার কখনই বলা উচিত নয় যে কখনও করব না। না শব্দটা কখনোই বলা কাম্য নয়, কিন্তু এমন একটা সময় আসবে যেখানে মনে হবে যা কিছু আপনার করার ছিল তার থেকে বেশিই করে ফেলেছেন।

তবে ‘মিস্টার বিন’ অনুপ্রেরণা পেয়েছে দুটো অ্যানিমেটেড সিরিজ থেকে। বিন এবং মিস্টার বিন’স হলিডে- দুটো ছবিই বাণিজ্যিকভাবে চূড়ান্ত সফল। চরিত্রটা মোটামুটি কথা বলে না বললেই চলে। শুধু মাঝেমধ্যে দুর্বোধ্য ভাষায় বিড়বিড় করে ওঠে।

স্কেচ-নির্ভর এই কমেডি শারীরিক অঙ্গভঙ্গিতে মাত করেছে দুনিয়া। মিস্টার বিন প্রাপ্তবয়স্কদের চেহারায় শিশুদের মস্তিষ্কসম্পন্ন এক ব্যক্তি। তিনি জানেনই না, সমাজের সবার সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ান তিনি। তাঁকে সব সময়ই দেখা যায় মার্কামারা টুইড জ্যাকেটে, সঙ্গে লাল টাই।
প্রত্যেকটা এপিসোডের শুরু হয় যেখানে দেখা যায় মিস্টার বিনের ওপর আকাশ থেকে স্পটলাইটে পড়ছে। তার বেমানান দৃষ্টি বলে দেয় ‘গণ্ডগোল আসছে’।

‘জনি ইংলিশ’-এর তৃতীয় কিস্তিতে সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে রোয়ান অ্যাটকিনসনকে।
সূত্র : ডিএনএ

সংবাদটি শেয়ার করুন