শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

ধর্ষণের অভিযোগে ক্ষতির মুখে রোনালদো



হঠাৎ করে উঠা ধর্ষণের অভিযোগটি ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর সাজানো গোছানো জীবনটা এলোমেলো করে দেবে না তো? ঝড়ের পূর্বাভাস কিন্তু সে রকমই। গণমাধ্যমের খবর, ধর্ষণের অভিযোগ উঠায় রোনালদোর সঙ্গে বিজ্ঞাপনী চুক্তিটা বাতিল করার কথা ভাবছে বিশ্বখ্যাত ক্রীড়া সামগ্রি প্রস্তুতকারক কোম্পানি নাইকি। সত্যিই যদি চুক্তিটা বাতিল করে নাইকি, তাহলে বিলিয়ন-ডলার ক্ষতির মুখোমুখি হতে হবে রোনালদোকে!

জুভেন্টাসের পর্তুগিজ সুপারস্টারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক মডেল ক্যাথরিন মায়োরগা। অভিযোগটা অবশ্য পুরোনো। সেই ২০০৯ সালে নাকি যুক্তরাষ্ট্রের লাগ ভেগাসের এক হোটেলে মায়োরগাকে ধর্ষণ করেন রোনালদো।

তখন অবশ্য টাকার বিনিময়ে সমঝোতাও হয়েছিল। কিন্তু সেই গোপন সমঝোতা চুক্তি বাতিল করে মায়োরগা নতুন করে অভিযোগটি তুলেছেন এবং মামলা ঠুকে দিয়েছেন। মায়োরগার অভিযোগের ভিত্তিতে লঅস ভেগাসের পুলিশ এরই মধ্যে তদন্ত কাজও শুরু করে দিয়েছে।

৩৩ বছর বয়সী রোনালদো অবশ্য অভিযোগটি দৃঢ় কণ্ঠে অস্বীকার করেছেন। নিজেকে নির্দোষ দাবি করে বলেছেন, তার মতো একজন বিবেকবান মানুষ কিছুতেই ধর্ষণের মতো জঘন্য অপরাধ করতে পারেন না! তিনি তাই এই অন্যায় অভিযোগ থেকে মুক্তি পেতে সেলিব্রেটি আইনজীবী ডেভিড চেশনভকে ভাড়া করেছেন। যিনি ক্রীড়াঙ্গন ও শোবিজ জগতের অনেক বিখ্যাত সেলিব্রেটিদের আইনী সহায়তা দিয়ে ধর্ষণ, খুন-নানা অভিযোগ থেকে মুক্ত করেছেন।

বিশ্বখ্যাত ক্রিমিনাল আইনজীবী চেশনভের আইনী সহায়তায় মুক্তি পাওয়া সেলিব্রেটিদের তালিকাটা অনেক লম্বা। কিংবদন্তি মুষ্ঠিযোদ্ধা মাইক টাইসন, টেনিস কিংবদন্তি আন্দ্রে আগাসী, বাস্কেটবল তারকা শাকুইল ও’নিল, বিশ্বখ্যাত অভিনেতা লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও, জেমি ফক্স, প্যারিস হিলটন, জগদ্বিখ্যাত জাদুশিল্পী ডেভিড কপারফিল্ড, সংগীত শিল্পী ব্রুনো মার্স-এদের সবাই চেশনভের আইনী সহায়তা নিয়েছেন। কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী মাইকেল জ্যাকসনের পরিবারকেও আইনী সাহার্য করেছেন চেশনভ।

জগত বিখ্যাত এই আইনজীবী রোনালদোকেও ধর্ষণের অভিযোগ থেকে নিষ্কলুষ প্রমাণ করতে পারবেন কিনা, বলবে সময়। তবে তার আগেই রোনালদোর ক্ষতি হয়ে যেতে পারে বিলিয়ন ডলার। বিশ্বের তিনজন ক্রীড়াবিদের সঙ্গে আজীবন বিজ্ঞাপনী চুক্তি করেছে নাইকি। তারা হলেন যুক্তরাষ্ট্রের দুই বাস্কেটবল কিংবদন্তি লেব্রন জেমস ও মাইকেল জর্ডান এবং ফুটবলার ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ তারকার সঙ্গে চুক্তির অঙ্কটা ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ৮৭০ মিলিয়ন ইউরো!

কিন্তু ধর্ষণের মতো গুরুতর অভিযোগ উঠায় নাইকি রোনালদোর সঙ্গে চুক্তিটা বাতিল করার কথা ভাবতে শুরু করেছে। বিশ্বজুড়ে তরুণরাই নাইকির প্রধান ক্রেতা। তরুণরা আদর্শ মানেন, এমন সেলিব্রেটিদের সঙ্গেই সব সময় গাটছড়া বাঁধে নাইকি। কিন্তু ধর্ষণের মতো গুরুতর অভিযোগে অভিযুক্ত একজনের সঙ্গে চুক্তিটা রেখে নাইকি নিজেদের বাজার হারাতে রাজি নয়!

রোনালদোর বিরুদ্ধে উঠা ধর্ষণের অভিযোগকে ‘গভীর উদ্বেগের’ বলে আখ্যায়িত করেছে নাইকি। তাই তারা চুক্তিটা বাতিলের কথাই ভাবছে। শুধু নাইকি নয়, ট্যাগ হুয়ের, হারবালাইফ, আমেরিকান ট্যুরিস্টার, ইএ স্পোর্টসসহ আরও যেসব নামীদামী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে রোনালদোর বিজ্ঞাপনী চুক্তি আছে, তারাও ধর্ষণের অভিযোগে উদ্বিগ্ন। কে জানে, চুক্তিগুলেf বাতিল হলে রোনালদোর বিলাসী জীবনাযাত্রাতেই নেমে আসতে অন্ধকার।  ফুরুত করে উড়ে যেতে পারে সুখপাখিটা। কথায় বলে না, টাকা না থাকলে ‘সুখ’ জানালা দিয়ে পালায়!

সংবাদটি শেয়ার করুন