সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

দোয়ারাবাজারে আ’লীগের জনসভায় বক্তারা নৌকার পক্ষে শামীম চৌধুরীর হাতকে শক্তিশালী করুন



সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে আ’লীগের জনসভায় বক্তারা বলেছেন, ‘সারা দেশে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার উন্নয়নের রোল মডেল গড়ে তুলেছেন। উন্নয়ন কে বাধাগ্রস্ত করতেই ড. কামাল বিএনপি কে নিয়ে জাতীয় ঐক্যের নামে গভীর ষড়যন্ত্র শুরু করেছেন। সকল ষড়যন্ত্রের মোকাবেলা করে আ’লীগের নেতাকর্মীদের মাঠে থাকতে হবে। নৌকার পক্ষে, উন্নয়নের পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। ছাতক-দোয়ারাবাজার আসনের বর্তমান এমপি মুহিবুর রহমান মানিক উন্নয়নের নামে লুটপাটে মেতে ওঠেছেন। তাই আগামী নির্বাচনে নেতৃত্বের পরিবর্তন ঘটিয়ে আগামী নির্বাচনে নৌকার পক্ষে শামীম আহমদ চৌধুরীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে’।
মঙ্গলবার(২ অক্টোবর) দুপুরে দোয়ারাবাজার জেলা আ’লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ও সুনামগঞ্জ-৫ আসনে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী শামীম আহমদ চৌধুরীর বিশাল শো-ডাউন শেষে উপজেলা সদরের মাছিম পুর মাদরাসা মাঠে এক জনসভায় বক্তারা উপরোক্ত কথা বলেছেন।
জনসভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে জেলা আ’লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল হুদা মুকুট বলেছেন, আজকে জনসভায় মানুষের ঢল প্রমাণ করে এ অঞ্চলে শামীম আহমদ চৌধুরী কতটা জনপ্রিয়। বর্তমান সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক সাহেব জনগণ থেকে এখন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন। দীর্ঘ ১০ বছর টানা ক্ষমতায় থেকেও এ অঞ্চলের কাংখিত উন্নয়ন করতে ব্যর্থ হয়েছেন। দলের নেত্রীর কাছেও তিনি একজন চিহিৃত ব্যক্তি। তিনি উন্নয়নের নামে লুটপাটে মেতে উঠেছেন। অন্ধ নেতৃত্বে পরিবর্তন ঘটিয়ে শামীম আহমদ চৌধুরীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। আগামী নির্বাচনে শামীম আহমদ চৌধুরীর পক্ষে নৌকার টিকিট পেতে তৃণমূল থেকে আওয়াজ তুলতে হবে। ।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে শামীম আহমদ চৌধুরী বলেন, ছাতক দোয়ারাবাজার আসনের এমপি মুহিবুর রহমান মানিক এখন অষভ্য রাজনীতি শুরু করেছেন। তিনি উন্নয়নের বদলে এখন আখের গোছাতে ব্যস্ত। সারা দেশে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার উন্নয়নের জোয়ারে ভাসালেও তিনি এ এলাকার উন্নয়নে কিছুই করেননি। তাই আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বর্তমান এমপি কে পত্যাখ্যান করে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে নৌকার মনোনয়ন তরুণ নেতৃত্বকে ছিনিয়ে আনতে হবে।

উপজেলা আ’লীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক শামীমুল ইসলাম শামীমের সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুবলীগ নেতা যুবরাজ আহমদ ও উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলমের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত জনসভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা আ’লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম শামীম, সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর চন্দ্র দাস, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী আবুল কালাম, জেলা আ’লীগ নেতা অমল কর, ছাতক উপজেলা আ’লীগের আহবায়ক আবরু মিয়া তালুকদার, জেলা পরিষদ সদস্য আজমল হোসেন সজল, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক জুবের আহমদ অপু, নোয়ারাই ইউপি চেয়ারম্যান পীর আব্দুল খালিক রাজা, স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আ’লীগ নেতা ও সুরমা ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মামুনুর রশীদ, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি দীপকংর কান্তি দে, দোয়ারাবাজার উপজেলা আ’লীগ নেতা শফিকুল ইসলাম রতন, সফিকুল ইসলাম (আর্মি)। জনসভার পূর্বে দোয়ারাবাজার উপজেলা সদরে শামীম আহমদের সমর্থনে বিশাল শোডাউন অনুষ্ঠিত হয়। দুপুর থেকেই সড়ক পথে মোটর শোভাযাত্রা ও নৌপথে খন্ড খন্ড মিছিল জনসভায় সমবেত হতে থাকে।

জনসভাস্থলে দুটি ড্রোন ক্যামেরা পর্যবেক্ষণ করে। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দোয়ারাবাজার উপজেলা সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ও প্রবীণ আ’লীগ নেতা একেএম আছকির মিয়া, জেলা পরিষদের সদস্য আমিনুল ইসলাম সেলিম, ইউপি চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন সাহেল, ছাতক সদর ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক রোটারিয়ান এম আবুল হোসেন, সদর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ, নরসিংপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আব্দুর রশীদ তালুকদার, মান্নারগাঁও ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আলহাজ্ব সিকন্দর আলী, বোগলাবাজার ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি হাবীবুর রহমান শেখ চান, বাংলাবাজার ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুছ সামাদ, মজুরবাজার একতা শক্তি যুবসংঘের সভাপতি শানুর মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমদ, উপস্থিত ছিলেন ছাতক ও দোয়ারাবাজার উপজেলা আ’লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন