সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ট ইউএনও কাজী মহুয়া মমতাজ



দোয়ারাবাজার উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রমের উন্নয়নের জন্য জেলা পর্যায়ে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক ২০১৮ এর জন্য মনোনীত হয়েছেন।

সুনামগঞ্জ জেলায় শ্রেষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে এ পদকে ভুষিত হয়েছেন তিনি।
উল্লেখ্য, কাজী মহুয়া মমতাজ দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদানের পর থেকে তিনি প্রত্যন্ত এলাকার প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে আন্তরিক প্রচেষ্ঠা চালান। এর আগে তিনি নেত্রকোনায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে দায়িত্বপালন করেন। আমাদের প্রত্যন্ত জনপদে যেখানে মনে করা হয় উচ্চ শিক্ষা অর্জন করা অধিকন্ত নারীদের স্বপ্ন মানেই শিক্ষক, সেবিকা কিংবা ডাক্তার হওয়া! আবার বেশিরভাগ নারীর স্বপ্নও শিক্ষক, সেবিকা কিংবা ডাক্তারির গন্ডির মধ্যেই আবদ্ধ তাদের জন্য উদাহরণ হতে পারেন দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী মহুয়া মমতাজ। তিনি নিজের যোগ্যতায় আমাদের পশ্চাদপৎ নারীদের দেখিয়ে দিয়েছেন শিক্ষার্জন করে শুধু শিক্ষকতা, নার্স কিংবা ডাক্তারি করা যায়না বরং যোগ্যতাবলে নারীরা প্রশাসনও চালাতে পারে। দোয়ারাবাজার উপজেলার মতো পশ্চাদপৎ উপজেলার নারীদের জন্য অনুপ্রেরণা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মহুয়া মমতাজ।

গত ১৭ নভেম্বর ২০১৮ইং তারিখে কর্মস্থল দোয়ারাবাজার উপজেলায় আনুষ্ঠানিক ভাবে যোগদান করেন তিনি। এরই মধ্যে নিজের কর্মদক্ষতা ও কর্তব্য নিষ্ঠায় উপজেলার সাধারণ মানুষসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট সর্বত্র সুনাম অর্জন করেছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ প্রিন্ট মিডিয়ায় প্রতিনিয়তই উনার কর্মকান্ড সাধারণ মানুষসহ সচেতন মানুষদের নজর কাড়ছে। তিনি উপজেলার নানাবিধ সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন। যেকোনো কাজে ছুটে যাচ্ছেন উপজেলার একপ্রান্ত থেকে অপরপ্রান্তে।
স্থানীয়রা জানান, বর্তমান উপজেলা নির্বাহী অফিসার একজন নারী হয়েও নিবিঘ্নে দক্ষতার সাথে প্রশাসনিক কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। আমরা নির্বিঘ্নে যেকোনো বিষয়ে মেডামকে কাছে পাই। যেকোনো সমস্যায় উনার অফিসে আমরা সরাসরি দেখা করতে পারি। খুব ভালো মানুষ তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন