রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২ | ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯

ক্ষমা পেলেন না সারিকা



সারিকা

শুটিং ইউনিট তৈরি, নাটকের অন্যান্য অভিনয়শিল্পীও প্রায় ঠিক সময়ে পৌঁছে গেছেন শুটিংয়ে। কিন্তু এখনো অপেক্ষা অভিনেত্রী সারিকার। সারিকাকে কাস্ট করে এমন পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন অনেক পরিচালক। বিষয়গুলো বিভিন্ন সময় ব্যক্তিগতভাবে সমাধান হলেও একসময় তা বড় আকারে রূপ নেয়। শেষ ঘটনা, নেপালে একাধিক নাটকে শুটিংয়ের জন্য যাওয়ার কথা থাকলেও শেষ সময় আর এয়ারপোটের আসেননি সারিকা। এমনকি ফোনও বন্ধ পাওয়া যায় তার। এরপর পরিচালক এ বিষয়ে নাট্য সংগঠনগুলোতে অভিযোগ করলে বিষয়টির সত্যতা বিবেচনা করে সারিকাকে ৬ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়।

সারিকা এ বিষয়ে কোনো কথা না বললেও সম্প্রতি তিনি ফেসবুকে ঘটনাটির জন্য ক্ষমা চেয়ে পোস্ট করেন। সারিকা লেখেন, ‘Sorry, পাঁচ অক্ষরের ছোট্ট একটি শব্দ। কিন্তু আজ সত্যি মনের গভীর থেকে মাফ চাইছি পরিবার, বন্ধু-বান্ধব, সহকমীর ও আমার শুভাকাক্সক্ষীদের কাছ থেকে। কখনো যদি জেনে না জেনে একটুও আঘাত করে থাকি অনুগ্রহ করে ক্ষমা করবেন।’ ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি আরও লেখেন, ‘আমার চারপাশের কঠিন পরিস্থিতি ও শারীরিক সমস্যার কারণে কিছু জটিলতায় ভুগছিলাম। তবে এটাও মানছি, সব তা না। নিজের ব্যাপারেও সতকর্ ছিলাম না, ভুলত্রুটি যতটুকু পারি শুধরে নেয়ার চেষ্টা করব। কারণ শেখার না আছে শেষ, না আছে বয়স। আজ না হয় পুরনো কষ্ট মুছে ফেলে নতুন করে শুরু করি সব। আমরা সবাই এক।’

তবে এত দিন নিষিদ্ধ হওয়া নিয়ে কোনো কথা বলেননি কেন জানতে চাইলে সারিকা বলেন, ‘গত কয়েক মাস আমার জীবনে কঠিন সময় গেছে। সব কিছু সামলে নিয়েছি। এদিকে আমার মেয়েকে স্কুলে দেয়ার জন্য প্রস্তুত করছিলাম। আগামী সপ্তাহ থেকে সে স্কুলে যাবে। এরপর আবার হয়তো নাটক কিংবা বিজ্ঞাপনচিত্রের শুটিং শুরু করতে পারব।’

তবে তার ‘Sorry’ বলে কোনো লাভ হলো না। সারিকার ‘Sorry’ বিষয়টি নিয়ে অভিনয়শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম বলেন, ‘তার এই সরি মেনে নেয়ার মতো না। একটি শুটিং ইউনিট তৈরি, কিন্তু তার কোনো খবর নেই। এ ছাড়া তার ফোনও বন্ধ। কাজের প্রতি দায়িত্ববোধ থাকতে হয়। এই জায়গাগুলো তাকে ঠিক করতে হবে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন