বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯

জগন্নাথপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১২ বছর ধরে পরিত্যক্ত এক্সরে মেশিন



১২ বছর পূর্বে আড়াই লাখ মানুষের সেবাদানের লক্ষ্যে আনা হয় একটি এক্সরে মেশিন। কিন্তুু দীর্ঘ একযুগ পেরিয়ে গেলেও এক্সরে মেশিনটি আজ অবধি চালু হয়নি। ফলে সেবা বঞ্চিত হচ্ছেন উপজেলাবাসী। এটি প্রবাসী অধ্যূষিত সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিত্র।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র জানায়, জগন্নাথপুরের আড়াই লাখ মানুষের একমাত্র অবলম্বন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ২০০৬ সালে নতুন একটি এক্সরে মেশিন আনা হয়। তখন থেকে এক্সরে মেশিনের অপারেটর না থাকায় মেশিনটি ব্যবহার করা যায়নি। বিদ্যুতের লো-ভোল্টজও এক্সরে মেশিন চালানোর অন্তরায় ছিল। ৫ বছর আগে জগন্নাথপুরের লো-ভোল্টেজের সমস্যা সমাধান হলেও অপারেটরের অভাবে অব্যবহৃতই থেকে গেছে এই এক্সরে মেশিন। ফলে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আসা লোকজনকে এক্সরের কাজ বাহিরে বেশি টাকা দিয়ে করাতে হচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার স্থানীয় সংসদ সদস্য অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান আকস্মিকভাবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরির্দশন করতে গেলে ভর্তিকৃত রোগীরা নানা সমস্যার কথাসহ এই এক্সরে মেশিন অব্যবহৃত থাকার কথাও জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রীকে। ।
জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা:শামস উদ্দিন আহমদ জানান, বিষয়টি সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন