বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯

তানজানিয়ার ফেরিটির ক্যাপ্টেন গ্রেফতার, চালক ছিল অন্য কেউ!



তানজানিয়ায় ফেরি ডুবে অন্তত ১৫১ জন যাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে ফেরিটির চালককে। জানা গেছে, তিনি ফেরিটি চালাচ্ছিলেন না। এমন কারো হাতে সেটি চালানোর দায়িত্ব দিয়েছিলেন যার এ বিষয়ে যথাযথ অভিজ্ঞতা নেই।

বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) লেক ভিক্টোরিয়ার তানজানিয়া অংশের ইউক্রেওয়ি দ্বীপের কাছে ডুবে যায় ফেরিটি। শুক্রবার (২১ সেপ্টেম্বর) এ ঘটনার জন্য দায়ীদের দ্রুত গ্রেফতার করতে নির্দেশ দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলি।

তার নির্দেশের পরেই গ্রেফতার করা হয় ক্যাপ্টেনকে। তবে এক টেলিভিশনকে দেওয়া সাক্ষাতকারে প্রেসিডেন্ট মাগুফলি জানিয়েছেন, তিনি খবর পেয়েছেন যে ওই ক্যাপ্টেন ফেরিটি চালাচ্ছিলেন না। বরং এমন কাউকে ফেরি চালানোর দায়িত্ব দিয়েছিলেন যার যথাযথ দক্ষতা বা প্রশিক্ষণ ছিল না। যার ফলে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

ফেরিডুবির ঘটনায় প্রায় দুইদিন হতে চললেও এখনো জানা যায়নি যে ঠিক কী কারণে এটি ডুবে গেছে। তবে সাধারণত অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহনের কারণেই এই ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ১৩৬ জন ছিল। তবে শনিবার সকাল নাগাদ এই সংখ্যা দাঁড়ায় ১৫১ জনে। আরো লাশ আছে কি না তা খুঁজে দেখতে অভিযান অব্যাহত রেখেছেন উদ্ধারকর্মীরা। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এই ঘটনায় চারদিনের রাষ্ট্রীয় শোকও ঘোষণা করেছে তানজানিয়া।

নৌযানটির ধারনক্ষমতা ছিল ১০০ জন। কিন্তু তানজানিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে জানানো হয়েছে, ফেরিটিতে দুইশ জনের বেশি যাত্রী ছিলেন। এদের মধ্যে মাত্র ৪০ জন সাঁতরে প্রাণ বাঁচাতে পেরেছেন।

তানজানিয়ার সংবাদপত্র দ্য সিটিজেনে প্রেসিডেন্টের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, ফেরির ভেতরে এখনো অনেক লাশ আটকে রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন