শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

ইতিহাস গড়লেন সালমা-রুমানারা



শ্রীলংকার সাথে হেরে প্রমিলা এশিয়া কাপ টি২০ শুরু করা বাংলাদেশকে সেদিন হয়তো ঘুণাক্ষরেও কেউ চ্যাম্পিয়ন হবে ভাবতে পারেননি।কিন্তু ভারত, পাকিস্তান, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়াকে হারিয়ে আবারো ফাইনালে অধরা ট্রফির সন্ধানে নামে সালমা বাহিনী। বাংলাদেশ সময় দুপুর বারোটায় টস জিতে ফিল্ডিংয়ে নেমে দারুণ আটোসাঁটো বোলিংয়ে রানের খাতাটা বেঁধে রাখেন রুমানারা। নিয়মিত উইকেট খুইয়ে ভারতীয় শিবিরও কোণঠাসা। এমন পরিস্থিতিতে অধিনায়ক হরমনপ্রিত একাই হাল ধরলেন দলের। একপাশ আগলে রেখে ৪২ বলে তার ৫৬ রানের ইনিংসে ১১২ রানের পূঁজি গড়ে ভারতীয় প্রমিলা দল। রুমানা ও খাদিজা ২ টি করে উইকেট নিয়েছেন।

১১৩ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে শামিমা-আয়েশার উদ্ভোধনী জুঁটিতে আসে ৩৫ রান।তারপরই আসে বড় ধাক্কা,স্পিনার পুনমের ম্যাজিকে পরপর দুবলে দু ওপেনার হারায় বাঘিনীরা। ৫৫ রানে ৩য় উইকেট পড়লে কিছুটা চাপে পড়ে বাংলাদেশ। কিন্তু সেটা নিজের কাধেঁ নিয়ে রুমানা দেখাতে থাকেন জয়ের স্বপ্ন। পুনম ৯ রানে ৪ উইকেট নিলে আরও ঘোলাটে হয় জয়ের আশা।শেষ বলে ২ রান দরকার হলে সেটাই করে দেখান ট্রাইগ্রেসরা। ফলে ৪ বারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে হারিয়ে ১ম বারের মত শিরোপা জিতে বাংলাদেশ। জয়ের উৎসবে মাতছে সারাদেশ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশংসার ঢেউ। হয়তো এশিয়া জয়ের পর বিশ্বজয়ের স্বপ্নটাও দানা বাধঁতে পারে এখান থেকেই।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ২০ ওভারে ১১২/৯ (মিতালি ১১, স্মৃতি ৭, দিপ্তি ৪, হারমানপ্রিত ৫৬, অনুজা ৩, ভেদা ১১, তানিয়া ১, শিখা ১, ঝুলন ১০, একতা ১*; নাহিদা ০/১২, সালমা ১/২৪, খাদিজা ২/২৩, জাহানারা ১/২৩, রুমানা ২/২২, ফাহিমা ০/৮)

বাংলাদেশ: ২০ ওভারে ১১৩/৭ (শামিমা ১৬, আয়েশা ১৭, ফারজানা ১১, নিগার ২৭, রুমানা ২৩, ফাহিমা ৯, সানজিদা ৫ জাহানারা ২*, সালমা ০*; একতা ০/১৩, শিখা ০/১০, দিপ্তি ০/১৯, অনুজা ০/২৩, পুনম ৪/৯, ঝুলন ০/২০, হারমানপ্রিত ২/১৯)।

ফল: বাংলাদেশ ৩ উইকেটে জয়ী

প্লেয়ার অব দা ম্যাচ: রুমানা আহমেদ

প্লেয়ার অব দা সিরিজ: হারমানপ্রিত কাউর

সংবাদটি শেয়ার করুন