শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুতের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ



বালাগঞ্জ -ওসমানীনগরে পবিত্র এই রমজানের শেষ দিকে প্রচন্ড গরম ও বিদ্যুতের অতি মাত্রায় লোডশেডিংয়ে অতিষ্ট মানুষ। নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুতের দাবিতে সিলেট-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করেছে স্থানীয় জনতা। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে পূর্ব ঘোষণা দিয়ে ৯জুন শনিবার দুপুর ২টার দিকে মহাসড়কের গোয়ালাবাজার এলাকায় এ অবরোধ গড়ে তুলেন বিক্ষোব্ধ গ্রাহকরা। খবর পেয়ে ওসমানীনগর থানার ওসি মোহাম্মদ সহিদ উল্যা নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সেবা প্রদানের ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনার প্রতিশ্রুতি দিলে অবরোধ প্রত্যাহার তুলে তারা। প্রায় ১৫ মিনিটের অবরোধে মহাসড়কে বিপুল সংখ্যক যানবাহন আটকা পড়ে।

অবরোধ স্থলে বক্তব্য রাখেন, যুবনেতা দিলদার আলী, মুকিদ মিয়া, ইউসুফ চৌধুরী, আব্দুল গাফফার, রুয়েল আহমদ, ইকবাল আহমদ, আলমগীর মিয়াপ্রমুখ। ওসমানীনগর থানার ওসি মোহাম্মদ সহিদ উল্যা অবরোধের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সিলেট-১ কাশিকাপন জোনাল অফিসের আওতায় বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরসহ আশপাশ এলাকার প্রায় ৬২ হাজার গ্রাহক রয়েছেন। রমজানের শুরু থেকে মাত্রাতিরিক্ত লোডশেডিংয়ের কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন এলাকাবাসী। ঈদকে সামনে রেখে এই লোডশেডিংয়ের কারনে ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছেন ব্যবসায়িরা অন্যদিকে রমজানে প্রচন্ড গরমে ইফতার, তারাবি, সেহরিসহ বিভিন্ন সময়ে ঘণঘণ লোডশেডিংয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন এলাকাবাসী। এ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে ফেসবুকে ব্যাপক সমালোচনা ও অসন্তোষ প্রকাশ করে আসছেন এলাকার সচেতন মহল। এমনকি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও ক্ষোভ প্রকাশ করে কর্তৃপক্ষের সমালোচনা করছেন।

গত শুক্রবার ইফতারের পূর্বে দয়ামীর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হাই মোশাহিদ তার ফেসবুকে লিখেন, ‘আজ, উমরপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামে আছি। তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস। দূপুর ১২ টা থেকে বিদ্যুৎ নেই এ রির্পোট পর্য়ন্ত। এখানে ভোট জ্বলিয়া যাইতেছে ৩৫ ডিগ্রী তাপমাত্রায়। মেইন রোডে ভোট খুজুন’। ওসমানীনগর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দিলদার আলী বলেন, পবিত্র এই রমজানের মধ্যে মাত্রারিক্ত লোডশেডিংয়ে জনজীবনে চরম ভোগান্তির সৃষ্টি করেছে। এব্যাপারে পল্লী বিদ্যুত সমিতি সিলেট-১ জোনাল অফিসের ডিজিএম জহিরুল ইসলাম বলেন, ১৬ মেগাওয়ার্ড বিদ্যুতের চাহিদার বিপরিতে ১৪ মেগাওয়ার্ড পাচ্ছি। দুই মেগাওয়ার্ডের ঘাটতি মোকাবেলায় লোডশেডিং করতে হচ্ছে। তবে চলতি সপ্তায় বিয়ানী বাজারের গ্রীডটি চালু হওয়ার কথা রয়েছে। তা হয়ে গেলে লোডশেডিং সমস্যা থাকবে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন